মাসে 45,000 টাকা নিশ্চিত আয় এর উপায়- অনলাইনে আয় করুন

এতদিন আপনি শুধু শুনেই গিয়েছেন অনলাইন থেকে আয় করা যায়। আপনি যদি অনলাইন থেকে আয় করতে চান তাহলে এবার আপনার আকাঙ্ক্ষা ও পূর্ণ হবে। কিন্তু কিভাবে ? আজকে জানতে পারবেন অনলাইনে নিশ্চিত আয় এর উপায়।

আমরা এই ওয়েবসাইটটি নির্মাণ করেছি সাধারণত যারা অনলাইন থেকে ইনকাম করার কথা ভাবছেন কোন রাস্তা খুঁজে পাচ্ছেন না তাদের সহযোগিতা করার জন্য। যদি কোন ব্যক্তি আমাদের দেয়া নিয়মকানুন মেনে অনলাইন থেকে কাজ শিখে কাজ করে, তাহলে সে ৩ থেকে ৩ মাসের মধ্যে তার ইনকাম শুরু করতে পারবে।

এখানে আমরা যে সমস্ত কাজ শিখায় সেগুলো কোনটাই short-term নয়। যেগুলি সবগুলোই একটি দীর্ঘস্থায়ী ইনকামের পদ্ধতি। মজার বিষয় হচ্ছে এখানে বেশিরভাগ কাজগুলোই এরকম যে, যার ইনকাম শুরু হবে কিন্তু কিন্তু শেষ হবেনা। আপনি কাজ করুন আর না করুন আপনার ইনকাম হতে থাকবে। কিন্তু সেটা রাতারাতি সম্ভব নয় এর জন্য আপনাকে সময় শ্রম এবং সঠিকভাবে কাজ করতে হবে।

অনলাইনে আয়ের নিশ্চিত উপায়
অনলাইনে আয়ের নিশ্চিত উপায়

তো বন্ধুরা এখানে আমরা বেশ কিছু বিষয়ে আলোচনা করেছি যেগুলো অনলাইন থেকে ইনকাম করতে চাইলে আপনাকে অবশ্যই জানতে হবে।

অনলাইন ইনকাম কি

সহজ ভাষায় বলতে গেলে, অনলাইন ইনকাম হলো এমন একটি প্রসেস যা ঘরে বসে কম্পিউটার অথবা স্মার্টফোনের মাধ্যমে ইন্টারনেট কানেকশন এর সাহায্যে আয় করা যায়।

অর্থাৎ আপনার স্মার্টফোন অথবা কম্পিউটার দিয়ে ঘরে বসেই বিশ্বের যেকোনো প্রান্তের কাজ করে দিয়ে টাকা উপার্জন করা। অনলাইন ইনকাম এর কয়েকটি ধাপ রয়েছে। কিছু কিছু ধাপ হলো খুব দ্রুত ইনকাম করা যায় এবং সেটি দীর্ঘস্থায়ী হয় না। আবার কিছু কিছু কাজ এমন রয়েছে যেগুলো ইনকাম শুরু করতে একটু সময় লাগে এবং যতদিন যায় আপনার কাজের পরিমাণ কমে আসে এবং ইনকাম এর পরিমাণ বাড়তে থাকে।

এখন আপনার সিদ্ধান্ত আপনি কোন কাজ বেছে নেবেন।

কয়েকটি অনলাইনে নিশ্চিত আয়ের উপায়

অনলাইনে ইনকামের ক্ষেত্রে দুইটি মাধ্যম রয়েছে একটি হলো প্যাসিভ ইনকাম এবং অন্যটি রেগুলার ইনকাম।

১। প্যাসিভ ইনকাম হলো যা শুরু হবে যতদিন যাবে ইনকাম বাড়তেই থাকবে। মজার বিষয় হলো আপনি কাজ করুন বা না করুন আপনার ইনকাম কিন্তু বন্ধ থাকবে না প্রতি মিনিটে এবং প্রতি সেকেন্ডে আপনার ইনকাম হতে থাকবে।

প্যাসিব ইনকামের কয়েকটি জনপ্রিয় মাধ্যম হলো:

ব্লগিং, গুগল এডসেন্স, এফিলিয়েট মার্কেটিং, সিপিএ মার্কেটিং, অনলাইন স্টোর, ই-কমার্স বিজনেস, ই-কমার্স মাল্টি ভেন্ডর বিজনেস, ইউটিউব, অনলাইন কোর্স, অনলাইন টুলস বিজনেস, প্লাগিন ডেভেলপমেন্ট, অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট ইত্যাদি।

২। রেগুলার ইনকাম এমন একটি ইনকাম সিস্টেম যেটা আপনি যত কাজ করবেন তত ইনকাম হবে। আপনি যখন কাজ কম করবেন তখন আপনার ইনকাম কম হবে এবং যখন আপনি কাজ ছেড়ে দেবেন তখন আপনার ইনকাম বন্ধ হয়ে যাবে।

অনলাইনে রেগুলার ইনকাম এর জনপ্রিয় কিছু মাধ্যম:

ফ্রিল্যান্সিং, গ্রাফিক ডিজাইন, লোগো ডিজাইন, ওয়েব ডিজাইন, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, আর্টিকেল রাইটিং, রিসার্স রাইটিং, টেকনিকাল রাইটিং, ভিডিও মার্কেটিং, ভিডিও এডিটিং, এনিমেশন মেকার ইত্যাদি।

কেন অনলাইন ইনকাম করবেন

অনলাইনে ইনকাম করার বিশেষ সুবিধা হল:

  • আপনার কোন অফিসের প্রয়োজন নেই। আপনি বাসায় বসে একটি কম্পিউটার এবং ইন্টারনেট কানেকশন দিয়েই আপনার ইনকাম শুরু করতে পারেন।
  • আপনাকে কাজের জন্য বিভিন্ন অফিসের দ্বারপ্রান্তে করতে হবে না। আপনি যদি একজন দক্ষ ব্যক্তি হন তাহলে অনলাইনে বিভিন্ন কোম্পানী আপনাকে খুজে নেবে।
  • কোন রকম ইনভেস্ট করতে হয় না। আপনি যদি কোন একটি বিষয়ে দক্ষতা অর্জন করেন তাহলে আপনি যেকোনো ভালো কোম্পানিতে ভালো বেতনে চাকরি করতে পারবেন।
  • আপনি চাইলেই নিজের একটি প্লাটফর্ম বা অনলাইনে একটি বিজনেস শুরু করতে পারবেন।
  • অনলাইনে আপনি ফ্রিল্যান্সার হিসেবে ঘন্টায়, দৈনিক, সাপ্তাহিক বা মাসিক কাজের মূল্য নির্ধারণ করে দিতে পারবেন। আপনি যেখানে কাজ করবেন সেখানে আপনি প্রতি ঘণ্টার মূল্য বুঝে নিতে পারবেন।
  • বর্তমানে অনলাইনে প্রচুর মার্কেটপ্লেস রয়েছে আপনি যেখানে ইচ্ছা কাজ করতে পারবেন।

অনলাইনে আয় করতে কতদিন সময় লাগবে

অনলাইনে আয় করতে কতদিন সময় লাগবে এটা সম্পূর্ণ নির্ভর করবে আপনি কি কাজ করতে চাচ্ছেন। অনলাইনে বিভিন্ন ধরনের কাজ রয়েছে এর মধ্যে কিছু কাজ রয়েছে যা এক থেকে দুই মাস পর থেকেই ইনকাম শুরু করা যায় আবার কিছু কিছু কাজ রয়েছে যেগুলো শিখলে 6 মাস থেকে 1 বছরের মধ্যে ইনকাম শুরু করা যায়।

যেমন অনলাইনে ইনকামের ভিতরে আর্টিকেল রাইটিং এর কাজ করতে গেলে খুব দ্রুত সময়ে ইনকাম শুরু করা সম্ভব। এছাড়াও যদি কেউ গুগল এডসেন্স নিয়ে কাজ করতে চাই সেক্ষেত্রেও দুই থেকে তিন মাসের মধ্যে ইনকাম শুরু করা সম্ভব।

তবে যদি কেউ গ্রাফিক ডিজাইন, ওয়েব ডিজাইন বা ওয়েব ডেভেলপমেন্টের কাজ নিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করতে চায় সেক্ষেত্রে একাজগুলো শিখতে মোটামুটি অনেক সময় লেগে যায়। মনে রাখবেন যে সমস্ত কাজ শিখতে বেশি সময় লাগে এবং তুলনামূলক কঠিন সে সমস্ত কাজ শিখলে অনলাইনে তুলনামূলক বেশি টাকা ইনকাম করা সম্ভব।

তাছাড়া অনলাইনে যে কাজগুলো তুলনামূলক কঠিন সে কাজগুলো কম্পিটিটর খুবই কম। সহজেই পাওয়া যায়। আবার যে কাজগুলি খুবই সহজ সে কাজগুলোর কম্পিটিটর বেশি। তাই কাজ গুলো পেতে অনেক কাঠ খড় পোড়াতে হয়।

কতদিন আয় করতে পারবো

আমি আগেই বলেছি অনলাইনে ইনকাম দুইজনের একটি হচ্ছে রেগুলার ইনকাম অন্যটি প্যাসিভ ইনকাম। রেগুলার ইনকাম আপনি যতদিন কাজ করবেন ততদিন ইনকাম করতে পারবেন। আর যদি প্যাসিভ ইনকাম রিলেটেড কোন প্লাটফর্ম তৈরি করতে পারেন সেক্ষেত্রে আপনি আজীবন ইনকাম করে যেতে পারবেন।

অর্থাৎ অনলাইনে আপনার প্রজেক্ট যতদিন লাইভ থাকবে আপনি ততদিন ইনকাম করতে পারবেন।

আমার কোন ইনভেস্ট করতে করতে হবে কিনা

অনলাইন থেকে ইনকাম করার ক্ষেত্রে যে সমস্ত কাজ রয়েছে তার মধ্যে অধিকাংশ কাজের ক্ষেত্রেই কোন রকম ইনভেস্ট করতে হয় না। আর যদিও করতে হয় তা খুবই সামান্য। এক কথায় বলতে গেলে আমরা যে সমস্ত টপিক নিয়ে আমাদের এই ওয়েবসাইটে আলোচনা করছি তার সবগুলোই কোন রকম ইনভেস্ট ছাড়াই ইনকাম করার প্রসেস।

যে সমস্ত মাধ্যমে ইনভেস্ট করতে হয় আমি কখনোই সেগুলো আপনাদেরকে রিকমেন্ড করব না। কেননা আমি কখনোই ইনভেস্টমেন্ট পছন্দ করিনা। যাইহোক আমি পছন্দ না করতে পারি আপনি তো পছন্দ করেন? যদি এমনটি হয় তাহলে আপনি আপনার রাস্তা খুঁজে নিতে পারেন।

  • আমরা কেন মিনামূল্যে কাজ শেখাবো

অনেকেই বিভ্রান্ত হচ্ছেন এ নিয়ে যে, আমরা বলেছি আমরা সম্পূর্ণ বিনামূল্যে আপনাকে কাজ শেখাব। কিন্তু আপনার মনে প্রশ্ন জেগেছে আমরা কেন আপনাকে ফ্রিতে কাজ শেখাবো তাইনা? হ্যাঁ কারণ তো অবশ্যই রয়েছে।

আপনারা যখন আমাদের এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের আর্টিকেল পড়বেন এবং কাজ শিখবেন তখন আমরা আমাদের আর্টিকেলগুলো কে কিছু বিজ্ঞাপন দ্বারা করে রাখবো। এক্ষেত্রে আপনার কোন কোর্স ফি দিতে হবে না আর আমরাও বিজ্ঞাপন থেকে আমাদের খরচ টা উঠিয়ে নিতে পারব।

আপনারা যদি আমাদের ওয়েবসাইট রেগুলার দেখাশুনা করেন তাহলে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে আমাদের যদি কিছু ইনকাম হয় সেক্ষেত্রে আপনার কাছে টাকা নেওয়ার কোনো যুক্তি নেই।

যাই হোক, আপনারা যদি অনলাইন থেকে ইনকাম করার কথা ভেবে থাকেন তাহলে অবশ্যই ভালোভাবে ভেবে চিন্তে একটি টপিক নির্ধারণ করবেন এবং সে অনুযায়ী কাজ করবেন।

কিভাবে মাসে 45000 টাকা আয় করবেন

আপনি যদি অনলাইন থেকে আয় করতে চান তাহলে ব্লগিং এবং ওবেবসাইট, ইউটিউব, গ্রাফিক্স ডিজাইন, এসইও, এডভান্স ফ্রীল্যান্সিং বা আর্টিল রাইটিং এর যেকোন একটি কাজ নির্ধারন করুন।

  • প্রতিদিন কমপক্ষে 4 থেকে 6 ঘন্টা সময় কাজ শিখুন এবং প্র্যাক্টিস করুন।
  • 2 থেকে 6 মাস এর মধ্যে আপনার প্রথম ইনকাম শুরু হবে। আমরা আপনাকে সহোযোগিতা করব।
  • কমপক্ষে 1 থেকে 3 বছর লাগাতার কাজ  করুন।
  • 1 থেকে 3 বছরের মধ্যে আপনি প্রতিমাসে 45,000 থেকে 70,000 + টাকা আয় করতে পারবেন।

তবে অবশ্যই আপনাকে পরিশ্রম করতে হবে।

সর্বোপরি আমার পরামর্শঃ

আমাদের এই ওয়েবসাইটের কোন টপিক এর ব্যাপারে আপনার যদি কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে নির্দ্বিধায় আমাদের কমেন্ট করতে পারেন। আমরা যত দ্রুত সম্ভব আপনার কমেন্টের রিপ্লাই দেয়ার চেষ্টা করব।

আর আপনি যদি প্রকৃতপক্ষেই সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকেন যে অনলাইনে কাজ শিখবেন তাহলে আমি মনে করব এটা আপনার জন্য সেরা একটি প্ল্যাটফর্ম। কেননা কোন ফ্রিল্যান্সার বা কোন ব্লগার ফ্রিতে কাউকে কাজ শিখতে চায় না। কিন্তু আমি আপনাদের সাথে যত ধরনের সেক্রেট বিষয় রয়েছে সবগুলোই ধীরে ধীরে শেয়ার করব- ইনশাল্লাহ।

1 thought on “মাসে 45,000 টাকা নিশ্চিত আয় এর উপায়- অনলাইনে আয় করুন”

Leave a Comment