ব্লগ ও ওয়েবসাইট এর মধ্যে পার্থক্য কি

অনলাইনে যারা বিভিন্ন কাজ করে থাকেন বা ইন্টারনেটে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ঘাঁটাঘাঁটি করতে পছন্দ করেন তারা অবশ্যই ব্লগিং,  ব্লগ এবং ওয়েবসাইট সম্পর্কে শোনেছেন। ব্লগ ও ওয়েবসাইট এর মধ্যে পার্থক্য কি? আবার অনেকেই এই বিষয়গুলোতে জানতে আগ্রহী। আবার অনেকে আছেন যারা ব্লগিং করে অনলাইন থেকে আয় করার কথা ভাবছেন। যাই হোক, ব্লগ এবং ওয়েবসাইট এর মধ্যে পার্থক্য কি? ব্লগিং কি? ওয়েবসাইট এর কাজ কি? ব্লগার কারা, এই বিষয়গুলি নিয়ে আজকের এই আলোচনা।

ব্লগ ও ওয়েবসাইট এর মধ্যে পার্থক্য কি এই বিষয়টি জানতে হলে তার আগে আমাদের বেশকিছু বিষয় সম্পর্কে ভালোভাবে ধারণা নিতে হবে। বন্ধুরা আপনি যদি ব্লগিং করে অনলাইন থেকে আয় করতে চান আমাদের এই আর্টিকেলটি আপনার অনেক উপকারে আসবে। বিস্তারি জানতে এই লেখাটি শেষ পর্যন্ত পড়তে হবে।

ব্লগ ও ওয়েবসাইট এর মধ্যে পার্থক্য কি
ব্লগ ও ওয়েবসাইট এর মধ্যে পার্থক্য কি

ব্লগ ও ওয়েবসাইট এর মধ্যে পার্থক্য কি

ওয়েবসাইট ও ব্লগ এর মধ্যে পার্থক্য তেমন কোন পার্থক্য নেই। আবার হিসাব করতে গেলে, ব্যপক পার্থক্য লক্ষ করা যায়। ব্লগ এক ধরনের ওয়েবসাইট যেটি সাধারনত প্রতিদিন আপডেট করা হয় পক্ষান্তরে ওয়েবসাইট যেটা কোন আপডেট করা হয় না বরং কোন প্রতিষ্ঠান, কোম্পানী বা প্রোডাক্ট এর বিবরণ তুলে ধরা হয়। আমরা যদি ব্লগ ও ওয়েবসাইট এর মধ্যে পার্থক্য বিশ্লেষণ করতে চাই তাহলে নিচের পার্থক্যগুলো আমরা খুঁজে পাই। যেমন-

ব্লগ কাকে বলে? ব্লগ কত প্রকার ও কি কি?

ব্লগ হলো এক ধরনের ওয়েবসাইট যে ওয়েবসাইট গুলো প্রতিনিয়ত আপডেট করা হয়। যে ওয়েবসাইটটিতে প্রতিদিন নতুন নতুন তথ্য ও সংবাদ আপডেট করা হয়। একটি ব্লগে একজন ভিজিটর এসে প্রতিদিন নতুন নতুন কিছু না কিছু জিনিস পাবে।

একটি ব্লগের সাধারণত হাজার হাজার পোস্ট করা হয়। একটি ব্লগের কয়েকজন এডমিন/ মডারেটর থাকে যারা প্রতিদিন পেজগুলোকে আপডেট করতে থাকে।

আবার কিছু কিছু রয়েছে যেগুলোতে multi-user থাকে। এসমস্ত ব্লগগুলোতে যেকোনো ইউজার লগইন করে তাদের তথ্যগুলো ইনপুট করে পাবলিশ করতে পারে।

আমি নিচে কয়েকটি ব্লগের উদাহরণ দিচ্ছি:

ব্লগ সাধারণত ৩ প্রকার:

ইনফোরমেটিভ ব্লগ: যে ওয়েবসাইটগুলোতে শুধুমাত্র কোনো তথ্য বা ইনফরমেশন আপডেট করা হয় এই সমস্ত ব্লগকে ইনফরমেটিভ ব্লগ বলা হয়। যেমন: করোনা আপডেট, শেয়ার বাজার আপডেট, বর্তমান কারেন্সি রেট। ইত্যাদি।

ইভেন্ট ব্লগ: 

নোটিশ রিলেটেড ব্লগ: কিছু কিছু ব্লগ রয়েছে যে ব্লগগুলোতে শুধুমাত্র বিভিন্ন নোটিশ গুলো প্রকাশ করা হয়। এটা হতে পারে চাকরির নোটিশ, পরীক্ষার নোটিশ, পরীক্ষার সময়সূচি, পরীক্ষার ফলাফল, ইত্যাদি বিষয়গুলো আপডেট রাখা হয়।

নিউজ ব্লগ: যে সকল ওয়েবসাইটে প্রতিদিন খেলাধুলা, রাজনীতি, অর্থনীতি, জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক সংবাদ প্রচার করা হয় এ সমস্ত ওয়েবসাইটে কেউ ব্লগ বলা হয়। যেমন- প্রথম আলো, দৈনিক ইত্তেফাক, All Jazeera, NDtv, BBC News ইত্যাদি।

আরও পড়ুন: ফ্রিল্যান্সিং কি ? ফ্রিল্যান্সিং করে অনলাইনে আয় – [Advance Freelancing]

ব্লগের উদ্দেশ্যঃ

একটি ব্লগের উদ্দেশ্য হলো- সাধারণত ব্লগের মাধ্যমে সাধারণ জনগণকে যে কোন একটি বিষয় সম্পর্কে আপডেট জানানো বা সঠিক তথ্য পৌছে দেয়া।

ওয়েবসাইট কাকে বলে? ওয়েবসাইট কত প্রকার ও কিকি?

একটি ওয়েবসাইট হলো যার মাধ্যমে একটি প্রতিষ্ঠান, কোম্পানি, প্রডাক্ট, বা কোনো ব্র্যান্ড এর বিবরণ তুলে ধরা হয়। ওয়েবসাইট গুলো সাধারণত যেভাবে তৈরি করা হয় সেভাবেই অনেকদিন পর্যন্ত থাকে। বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া এতে কোনো পরিবর্তন করা হয় না। বা একটি ওয়েবসাইট প্রতিনিয়ত আপডেট পরিবর্তন করার প্রয়োজন পড়ে না। একই তথ্য দিয়ে তৈরি করা থাকে একটি ওয়েবসাইট।

ওয়েব সাইট সাধারনত ৬ প্রকারঃ

১। প্রতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট:

প্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট সাধারণত তৈরি করা হয় কোন প্রতিষ্ঠান এর জন্য। যেমন কোন হাসপাতাল, স্কুল, কলেজ, ইউনিভার্সিটি, ব্যাংক, বীমা ইত্যাদি। এই ওয়েবসাইটগুলোতে সাধারণত সেই প্রতিষ্ঠান যাবতীয় তথ্য তুলে ধরা হয়।

২। কোম্পানী ওয়েব সাইট:

কোম্পানি ওয়েবসাইট যে কোন কোম্পানির প্রচার-প্রচারণা বা কোম্পানির যাবতীয় প্রোডাক্ট পণ্য এবং অন্যান্য সকল সুযোগ-সুবিধা তুলে ধরা হয়। আবার এই সমস্ত ওয়েবসাইটের মাধ্যমে সেই কোম্পানির হিসাব নিকাশ, শ্রমিক নিয়োগ সংক্রান্ত তথ্য আপডেট করা হয়। যেমন: ‍pranrflgroup, squaregroup, mgigroup ইত্যাদি।

৩। প্রোডাক্ত ভিক্তিক ওয়েবসাইট:

মার্কেটে যখন কোন নামিদামি পণ্য আসে সেই 15 টির নামে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করা হয় এবং সেই ওয়েবসাইটটি শুধুমাত্র সেই পণ্যের গুণাগুণ, গুণগত মান, কোয়ালিটি, ইউজার ম্যানুয়াল, সিকিউরিটি, ওয়ারেন্টি, সার্ভিস সংক্রান্ত তথ্য দেয়া থাকে।

৪। ইভেন্ট ভিক্তিক ওয়েবসােইট:

ভিত্তিক ওয়েবসাইট হলো এমন একটি ওয়েবসাইটে ওয়েবসাইটে শুধুমাত্র কোন ইভেন্ট কে ঘিরে তৈরি করা হয়। যেমন কোনো সংবর্ধনা অনুষ্ঠান এর যাবতীয় তথ্য তুলে ধরার জন্য ওয়েবসাইট তৈরি করা হয়। অথবা কোন বিবাহ সংবর্ধনা বা অন্যান্য কোন সংবর্ধনার জন্য ওয়েবসাইট তৈরি করা হয়। যেমন- শতবর্ষ উৎযাপন, পূনর্মিলন ইত্যাদি।

এছাড়াও জনপ্রিয় খেলাধুলা, যেমন- আইপিএল, ফিফা ওয়ার্ডকাপ, কুপা আমেরিকা ইত্যাদির জন্য নির্ধারিত ওয়েবসাইট। অথবা যখন কোন নতুন মুভি বক্স অফিসে রিলিজ হয় তখন সেই মুভির ট্রেইলার, অভিনেতা, খরচ, টার্গেট, ‍মূল আকর্ষন এইসকল বিষয় নিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করা হয়।

আরও পড়ুন: আর্টিকেল লিখে আয় করুন মাসে $1000 ডলার । আর্টিকেল লেখার নিয়ম

৫। ব্যবসায়িক ওয়েবসাইট:

কোন ব্যবসা পরিচালনার ক্ষেত্রে ব্যবসার যাবতীয় তথ্য তুলে ধরার জন্য প্রয়োজন হয় একটি ওয়েবসাইট। এ সমস্ত ওয়েবসাইটকে আমরা ব্যবসায়ীক ওয়েবসাইট বলে থাকি। একটি ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান সাধারণত ব্যবসার খুঁটিনাটি বিষয় গুলি ব্যবসার সুবিধা ও অসুবিধা ব্যবসার ব্যবসার পণ্য এবং ব্যবসার কারিকুলাম সম্পর্কে বর্ণনা করা থাকে। যেন যে কেউ ওয়েবসাইট থেকে ব্যবসার যাবতীয় ধারণা পেয়ে যায়।

৬। ই-কমার্স ওয়েবসাইট:

ই-কমার্স ওয়েবসাইট ও একটি ব্যবসায়িক ওয়েবসাইট এ ধরনের ওয়েবসাইট থেকে বিভিন্ন পণ্য বেচাকেনা করা হয়। মোটকথা যে সমস্ত ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অনলাইন স্টোর তৈরি করে বিভিন্ন পণ্য বেচাকেনা করা হয় এই সমস্ত ওয়েবসাইটকে ই-কমার্স ওয়েবসাইট বলা হয়। সমস্ত ওয়েবসাইটে প্রতিদিন নিত্যনতুন আপডেট করা হয় এবং দামের পরিবর্তন করা হয়। এসমস্ত ওয়েবসাইটের সাথে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় জড়িত থাকে যেমন ডেলিভারি, গুণগত মান নিশ্চিত করা, সময় মেনটেন করা ইত্যাদি।

আরও পড়ুন: ই-কমার্স ব্যবসা কি? কিভাবে ই-কমার্স ব্যবসা শুরু করবেন।

তো বন্ধুরা আমরা এতক্ষন জানলাম ওয়েবসাইট এবং ব্লগ সম্পর্কে বিশদ একটি বিশ্লেষন। সর্বোপরি- ব্লগ এবং ওয়েবসাইট এর মধ্যে পার্থক্য করতে গেলে শাব্দিক দিক থেকে কিছুটা পার্থক্য রয়েছে এবং ব্যবহারের দিক থেকে বেশ কিছু পার্থক্য রয়েছে। যা আমরা ইতিমধ্যে জেনেছি।

সর্বোপরি :

বন্ধুরা এবং ওয়েবসাইট এর পার্থক্য সম্পর্কে আমি বিশদভাবে ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করেছি। আপনি যদি উপরের সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ে থাকেন আশা করি ওয়েবসাইট এবং ব্লগ সম্পর্কে আপনার পরিপূর্ণ একটি ধারণা চলে এসেছে। এরপর যদি আপনার কোনো পরামর্শ বা মতামত থাকে তাহলে অবশ্যই আমাদের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানাবেন।

আর আমাদের এই লেখাটি অবশ্যই বন্ধুদের সাথে শেয়ার করে তাদের জানার সুযোগ করে দিবেন। ইনশাআল্লাহ

Leave a Comment