এডসেন্স থেকে টাকা তোলার পদ্ধতি – গুগল এডসেন্স থেকে টাকা আয়

অনলাইনে ঘরে বসে আয় করার যতগুলো মাধ্যম রয়েছে তার মধ্যে  গুগল এডসেন্স থেকে টাকা আয় করাসবচেয়ে সহজ এবং সবচেয়ে প্রচলিত একটি পদ্ধতি। এই আর্টিকেলে আমরা জানব গুগল এডসেন্স থেকে টাকা আয় করে এডসেন্স থেকে টাকা তোলার পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত।

আপনি যদি গুগল এডসেন্স থেকে টাকা ইনকাম করতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে গুগল এডসেন্স এর নীতিমালা মেনে ওয়েবসাইট তৈরি করতে হবে।

তাছাড়াও গুগল এডসেন্স এর নিয়ম কানুন গুলো ভালোভাবে জানতে হবে। আপনি যদি গুগল এডসেন্স এর নিয়ম গুলো সঠিকভাবে না জানেন তাহলে হয়তোবা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে।

তো বন্ধুরা, চলুন দেখে নেওয়া যাক গুগল এডসেন্স থেকে টাকা তোলার পদ্ধতি সহ জরুরী কিছু বিষয়।

গুগল এডসেন্স থেকে টাকা তোলার পদ্ধতি
গুগল এডসেন্স থেকে টাকা তোলার পদ্ধতি- গুগল এডসেন্স থেকে টাকা আয়

গুগল এডসেন্স কি?

এডসেন্স হলো একটি ওয়েব বেজড অ্যাপ্লিকেশন এবং এটি সর্ববৃহৎ বিজ্ঞাপন নেটওয়ার্ক। এটি গুগলের একটি সার্ভিস। 18 ই জুন 2003 সালে প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে এবং 18 বছর থেকে সুনামের সাথে সার্ভিস পরিচালনা করে আসছে।

গুগল এডসেন্স সবচেয়ে বেশি পেয়ে করা একটি বিজ্ঞাপন নেটওয়ার্ক। আপনি যদি একটি ওয়েবসাইট বা ইউটিউব চ্যানেলের মালিক হন তাহলে আপনিও গুগল এডসেন্স এর বিজ্ঞাপন মনিটাইজ করে সেখান থেকে প্রতিমাসে আনলিমিটেড ইনকাম করতে পারেন।

গুগল অ্যাডসেন্স সাধারণত পাবলিশার এবং অ্যাডভারটাইজার এর মধ্যে মধ্যস্থতা কারী একটি সার্ভিস। এডভাইজার এর কাছ থেকে বিজ্ঞাপন নিয়ে ওয়েবসাইট ইউটিউব চ্যানেল এর পাবলিশারদের মাঝে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করে। এবং অ্যাডভাইজার দের কাছ থেকে ঢাকা নিয়ে সেই টাকা পাবলিশারদের মাঝে বন্টন করে দেয়। এবং গুগল এডসেন্স মধ্যস্থতাকারী হিসেবে কিছু কমিশন রেখে দেয়।

গুগল এডসেন্স কেন ব্যবহার করা হয়?

গুগল এডসেন্স সাধারণত ওয়েবসাইটে অথবা ইউটিউব চ্যানেলে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করার জন্য মধ্যস্থতা হিসেবে ব্যবহার করা হয়। গুগল এডসেন্সের মাধ্যমে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করে আমরা ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম করি। এবং গুগল অ্যাডসেন্সের টাকা তুলতে প্রয়োজন হয় একটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট। এবং কিছু পদ্ধতি অবলম্বন করে এই টাকা আমরা হাতে পাই।

আরও পড়ুনঃ ব্লগিং কি, কিভাবে শুরু করবেন- ব্লগিং করে আয় করুন মাসে 2 লক্ষ টাকা

গুগল এডসেন্স থেকে টাকা তোলার পদ্ধতি:

গুগল এডসেন্স কে বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞাপন নেটওয়ার্ক হিসেবে আমরা সবাই জানি। গুগল এডসেন্স প্রতিমাসে কয়েক বিলিয়ন ডলার পাবলিশারদের পে করে থাকে।

গুগল এডসেন্স থেকে টাকা আয় করা খুবই সহজ এবং এই টাকা তোলাও খুব সহজ। তো বন্ধুরা চলুন দেখে নেয়া যাক কিভাবে গুগল এডসেন্স এর টাকা তোলা যায়।

গুগল এডসেন্স থেকে টাকা তোলার পদ্ধতি গুলো ধাপে ধাপে তুলে ধরা হলোঃ

গুগোল অ্যাডসেন্সে অ্যাপ্রভালঃ

প্রথমে গুগোল অ্যাডসেন্সে অ্যাপ্রভাল নিতে হবে। গুগোল অ্যাডসেন্সে অ্যাপ্রভাল পাওয়ার জন্য আপনার একটি ওয়েবসাইট অথবা একটি ইউটিউব চ্যানেল অথবা মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন থাকতে হবে। অতঃপর সেটিকে সুন্দর করে গুগোল এর নীতিমালা অনুযায়ী সাজিয়ে গুগল এডসেন্স এর আবেদন করতে হবে।

আবেদন করার পর গুগোল সেটিকে ম্যানুয়ালি পরিদর্শন করবে। পরিদর্শন করে যদি অ্যাডসেন্সে অ্যাপ্রভাল দেয়ার মতো উপযুক্ত হয় তাহলে গুগল এডসেন্স এর বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের জন্য অ্যাপ্রভাল দিয়ে দিবে। এবং আপনাকে ইমেইলের মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে।

গুগল এডসেন্স এর বিজ্ঞাপন প্লেসমেন্টঃ

আপনার ওয়েব সাইট অথবা ইউটিউব চ্যানেল গুগল এডসেন্স দ্বারা অ্যাপ্রভাল হলে আপনি সরাসরি google.com/adsense এ প্রবেশ করে গুগোল অ্যাডসেন্সে নির্ধারিত বিজ্ঞাপন কোড আপনার সাইটে যেখানে যেখানে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করতে চান সেখানে প্লেস করতে হবে।

আপনার ওয়েবসাইটে গুগল এডসেন্স এর বিজ্ঞাপন কোড বসানো হয়ে গেলে গুগল এডসেন্স সেখানে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করবে।

যখন ভিজিটররা আপনার ওয়েবসাইট ভিজিট করবে তখন গুগলের বিজ্ঞাপন দেখতে পাবে এবং যখনই গুগল এডসেন্স এর বিজ্ঞাপনের উপর ক্লিক হবে তখন আপনার ইনকাম হবে।

আরও পড়ুনঃ ফ্রিল্যান্সিং কি ? ফ্রিল্যান্সিং করে অনলাইনে আয় – [Advance Freelancing]

ঠিকানা ভেরিফাইডঃ

আপনার গুগল এডসেন্স একাউন্টে যখন 10 ডলার পূর্ণ হবে তখন গুগল এডসেন্স থেকে আপনার ঠিকানায় একটি চিঠি পাঠানো হবে। এবং সেটিতে একটি কোড লেখা থাকবে। চিঠি আসতে সাধারণত দশ থেকে বিশ দিন সময় লেগে যায়।

চিঠি আপনার নিকটস্থ পোস্ট অফিস থেকে কালেক্ট করতে হবে। চিঠি দেয়া কোড দিয়ে আপনার ঠিকানা ভেরিফাই করতে হবে। ঠিকানা ভেরিফাই হয়ে গেলে আপনার এডসেন্স একাউন্ট এর সাথে ব্যাংক একাউন্ট যুক্ত করতে পারবেন।

ব্যাংক একাউন্ট যুক্ত করুনঃ

আপনার ঠিকানা ভেরিফাই হয়ে গেলে যে কোনো সরকারি বা বেসরকারি ব্যাংক একটি একাউন্ট খুলতে হবে। আপনার একাউন্ট খোলা হয়ে গেলে সে একাউন্ট টি গুগল এডসেন্স এর পেমেন্ট অপশনে গিয়ে যুক্ত করে দিতে হবে। গুগল এডসেন্স একাউন্ট এর পেমেন্ট পদ্ধতি যুক্ত করার সময় অবশ্যই ব্যাংকের swift code সহ যুক্ত করতে হবে।

একাউন্টে নির্ধারিত পরিমাণ টাকা জমা হওয়াঃ

এবার আপনার গুগল এডসেন্স একাউন্টে কমপক্ষে 100 ডলার জমা হয়ে গেলে গুগল এডসেন্স অটোমেটিক আপনার ব্যাংক একাউন্টে টাকা পাঠিয়ে দেবে। নতুন অবস্থায় যদি আপনার একাউন্টে 100 ডলার এক মাসে পূর্ণ না হয় তাহলে পরের মাসের ব্যালেন্স এর সাথে আপনার অ্যাকাউন্ট ব্যালেন্স যুক্ত হয়ে যাবে।

আপনার গুগল এডসেন্স একাউন্টে যদি 100 ডলারের কম ব্যালেন্স থাকে তাহলে আপনাকে সে মাসে আর পেমেন্ট করা হবে না।

এডসেন্স কখন টাকা পেয়ে করেঃ

প্রতি মাসের 1 তারিখ থেকে মাসের শেষের দিন পর্যন্ত যা ইনকাম হবে সমস্ত ডলার পরের মাসের 1 তারিখে আপনার মূল ব্যালেন্সে যুক্ত হয়ে যাবে। যদি আপনার এডসেন্স একাউন্টে 100 ডলার বা তার বেশি অ্যাকাউন্ট ব্যালেন্স থাকে তাহলে সেটি মাসের 21 তারিখে আপনার ব্যাংক একাউন্টে পাঠিয়ে দেবে।

গুগল এডসেন্স থেকে 21 তারিখে আপনার ব্যাংক একাউন্টে টাকা পাঠালে 5 কর্মদিবসের মধ্যে আপনার ব্যাংক একাউন্টে টাকা যুক্ত হয়ে যাবে। আপনি ব্যাংক একাউন্ট চেক করে যেকোনো সময় আপনার টাকা তুলে নিতে পারবেন।

আরেকটু সহজ করে বলছি- মনে করুন আপনার এডসেন্স একাউন্টে অক্টোবর মাসের 1 তারিখ থেকে 31 তারিখ পর্যন্ত মুড ব্যালেন্স হয়েছে ৭৬৫ ডলার। তাহলে এই ডলারগুলো গুগল এডসেন্স নভেম্বর মাসের 21 তারিখে আপনার একাউন্টে পাঠিয়ে দেবে। এবং আপনি সেটি ৩ থেকে ৯ কর্মদিবসের মধ্যে পেয়ে যাবেন।

গুগল এডসেন্স এর টাকা হাতে পেতে কতদিন সময় লাগেঃ

আমি এ পর্যন্ত ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ এর মাধ্যমে দুই/তিন কর্মদিবসের মধ্যে টাকা পেয়ে গেছি। এবং ডাচ-বাংলা ব্যাংক লিমিটেড এর মাধ্যমে ৭ থেকে ২০ কর্ম দিবসের মধ্যে টাকা হাতে পেয়েছি।

বিভিন্ন বিভিন্ন ভাবে পেমেন্ট করে থাকে। কোন কোন ব্যাংক দ্রুত পেমেন্ট করে আবার কিছু কিছু ব্যাংক একই পেমেন্ট দেরিতে করে।

গুগল এডসেন্স এর টাকা তোলার জন্য যে ব্যাংক একাউন্টে যুক্ত করবেন সেটি অবশ্যই দেখেশুনে করবেন যে সকল ব্যাংক খুব দ্রুত পেমেন্ট করে থাকে সেগুলো যুক্ত করাই ভালো। কেননা যত দ্রুত টাকা হাতে পাব তবে আমাদের জন্য ভালো।

ব্যাংক থেকে টাকা সংগ্রহ করাঃ

বর্তমান ব্যাংকিং পদ্ধতি অনুসারে গুগল অ্যাডসেন্সের টাকা যখনই আপনার ব্যাংকে ডিপোজিট হয়ে যাবে তখন সাথে সাথে আপনাকে এসএমএস করে জানানো হবে। আর পেমেন্ট এর এসএমএস হওয়ার পর আপনি চেক বা এটিএম কার্ডের মাধ্যমে যেকোনো সময় ব্যাংক একাউন্ট থেকে টাকা তুলে নিতে পারবেন।

সাধারণ অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা তোলার মতোই গুগল অ্যাডসেন্সের টাকা তোলা যায়। ব্যাংক একাউন্ট থেকে টাকা তুলতে অতিরিক্ত কোন ডকুমেন্টস এর প্রয়োজন হয় না।

এমনকি ব্যাংক একাউন্ট যুক্ত করে দেয়ার পর আপনার আর কোন কিছুই করতে হবে না যখনই আপনার এডসেন্স একাউন্টে টাকা জমা হয়ে যাবে তারা অটোমেটিক আপনার ব্যাংক একাউন্টে টাকা পাঠিয়ে দেবে। এরমধ্যে আপনাকে আর কোন কিছুই করতে হবে না।

সর্বোপরি আমাদের পরামর্শঃ

বন্ধুরা আমরা এতক্ষন গুগল এডসেন্স থেকে টাকা তোলার পদ্ধতি সম্পর্কে আলোচনা করলাম। আশা করি গুগল এডসেন্স থেকে টাকা তোলার পদ্ধতি সম্পর্কে সকল বিষয় আপনি সঠিকভাবে জানতে পেরেছেন।

তারপরও আপনার যদি কোন মতামত বা পরামর্শ থাকে তাহলে অবশ্যই আমাদের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানাবেন। আমরা যত দ্রুত সম্ভব আপনার কমেন্টের রিপ্লাই দেয়ার চেষ্টা করব। বন্ধুরা যদি আপনার কাছে ভালো লাগে তাহলে বন্ধুদের সাথে শেয়ার জানার সুযোগ করে দিন। ধন্যবাদ

Leave a Comment